অভিনয় ক্যারিয়ারে মাহেন্দ্রক্ষণে আরফান আহমেদ

অভিনয় ক্যারিয়ারে মাহেন্দ্রক্ষণে আরফান আহমেদ

 বিনোদন ডেস্ক : টিভি নাটকের জনপ্রিয় ও ব্যস্ত অভিনেতা আরফান আহমেদ। গত কয়েক বছর ধরেই অভিনয়ের কারণে ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা তৈরি হয়েছে তার। এক খণ্ডের নাটকের পাশাপাশি ধারাবাহিকেও তার অভিনয় প্রতিভা দেখছেন দর্শক। বর্তমানে তিনি অভিনয় করছেন একগুচ্ছ ধারাবাহিক নাটকে। 

এগুলো হলো- রওনক হাসানের পরিচালনায় ‘বিবাহ হবে’, ফরিদুল হাসানের ‘ফরেন ভিলেজ’, জাহিদ হাসানের ‘হুলুস্থুল’ ও ‘পিছুটান’, সঞ্জিত সরকারের ‘চিটিং মাস্টার’, কায়সার আহমেদের ‘চান বিরিয়ানি’, আবু হায়াত মাহমুদ ও সাইদুর রহমান রাসেলের ‘একশোতে একশো’, আকাশ রঞ্জনের ‘বউ শ্বাশুড়ি’। এ ছাড়া প্রতিনিয়ত এক খণ্ডের নাটকেও অভিনয় করছেন এ অভিনেতা। 

আরফানের অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল ১৯৯৫ সালে। তখন তিনি শামসুদ্দোহা তালুকদারের প্রযোজনায় ‘পুরস্কার’ নাটকে অভিনয় করেন। নাটকটি বিটিভিতে প্রচার হয়েছিল। 

১৯৯৭ সালে বিটিভির তালিকাভুক্ত শিল্পী হওয়ার পর আতিকুল হক চৌধুরীর নির্দেশনায় ‘ধূসর প্রাসাদ’ নাটকে অভিনয় করেন তিনি। পরবর্তীতে একই সময়ে আরফান ‘পাথর কুচি’,‘ আবদুল মালেকের ‘হাসি’, ‘আকালি’, ‘শোকানি’সহ আরও কিছু নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন। 

অভিনয়ের ব্যস্ততার মধ্যেই ২০০৩ সালের মার্চ থেকে ২০০৭ সালের মে পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় প্রবাস জীবনে ছিলেন। ফিরে এসে তিনি অরণ্য আনোয়ার, আল হাজেন, মাহফুজ আহমেদ, সাগর জাহানের সহযোগিতায় আবারও অভিনয়ে ব্যস্ত হয়ে ওঠেন। 

অভিনয় জীবনে এ পর্যায়ে এসে আরফান বলেন, ‘মাঝে অভিনয়ে বিরতির পর ‘আরমান ভাই’ নাটকে একটি চামচা চরিত্র থেকে আজ আমি নাটকের গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রগুলোতে কাজ করছি। আমার এই জার্নিটা খুব সহজ ছিল না। তবে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। বড় অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করার স্বপ্ন ছিল, তা পূরণ হয়েছে আমার। তার চেয়েও ভালো লাগা শ্রদ্ধেয় তারিক আনাম খান, জাহিদ হাসান, তৌকীর আহমেদের মতো বড় বড় শিল্পীরা আমার নির্দেশনায় অভিনয় করেছেন। এক জীবনে এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কী-ইবা হতে পারে। আমি সন্তুষ্ট আমার অভিনয় জীবন নিয়ে।’ 

আরফান আহমেদ রচিত প্রথম নাটক ‘আলো আঁধার’। পরিচালিত প্রথম নাটক ‘সে কথা গোপন ছিল’। জীবনের বাকি সময়গুলোয় অভিনয় করেই কাটিয়ে দিতে চান তিনি। 
সিলেট প্রতিদিন /টিআই