আজ বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন

আজ বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন

প্রতিদিন ডেস্ক :: ‘ওই মহামানব আসে/ দিকে দিকে রোমাঞ্চ লাগে/ মর্ত্য ধূলির ঘাসে ঘাসে…’। জীবন সায়াহ্নে এসে শান্তিনিকেতনে বসে পঙ্ক্তিগুলো লিখেছিলেন বাংলা সাহিত্যের অনন্যপুরুষ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বাঙালির রবি ঠাকুর। দিনটি ছিল ১৩৪৮ বঙ্গাব্দের প্রথম দিন পহেলা বৈশাখ। জীবনের ৮০টি বসন্ত পেরিয়ে এসে কবি লিখেছিলেন এই বাণী। যার উদ্দেশেই রবি ঠাকুর এ পঙ্ক্তিমালা রচনা করে থাকেন না কেন, ২৫ বৈশাখ এলে বাঙালি স্মরণ করে তাকেই।

হ্যাঁ, আজ ২৫ বৈশাখ। কাব্য, গীত, কথাসাহিত্য তো বটেই, বাঙালি সত্তা ও সংস্কৃতির মহানায়ক রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন আজ। ১৬০ বছর আগে ১২৬৮ বঙ্গাব্দের ২৫ বৈশাখ কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়ি আলো করে জন্ম নেন বাংলা সাহিত্যের এই প্রবাদপুরুষ। এরপর গত দেড় শতক ধরে বাঙালির যাপিত জীবনের সঙ্গে অবিচ্ছেদ্য হয়ে জড়িয়ে পড়েছেন।

কৈশোরে ছড়ার সঙ্গে সম্পর্ক দিয়ে শুরু। কবিতা, গল্প, প্রবন্ধ, উপন্যাস, নাটক, নৃত্যনাট্য— যেখানেই হাত দিয়েছেন, সোনা ফলেছে। ৫২টি কাব্যগ্রন্থ, ৩৮টি নাটক, ১৩টি উপন্যাস ও ৩৬টি প্রবন্ধ ও অন্যান্য গদ্যসংকলন বলছে— আজীবন দু’হাত ভরে লিখে গেছেন রবীন্দ্রনাথ। এর বাইরে তার চিঠিপত্র, ভ্রমণ কাহিনীর সংকলনও বাংলা সাহিত্যের আকর গ্রন্থ হিসেবে সমাদৃত। আর এসবের মাধ্যমেই বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে তিনি পৌঁছে দিয়েছেন অনন্য উচ্চতায়। বিশ্ব সাহিত্যের দরবারে বাংলাকে প্রতিষ্ঠিত করে জয় করেছেন নোবেল পুরস্কার। বাঙালির কাছে হয়ে উঠেছেন গুরুদেব, কবিগুরু, বিশ্বকবি।


এ তো গেল সাহিত্যের কথা। সাহিত্যের বাইরেও বিভিন্ন ক্ষেত্রে রবীন্দ্রনাথ এক সুমহান উচ্চতায় আসীন। কেবল গানের বাণী রচনা নয়, সেগুলোর সুরস্রষ্টা হিসেব বাংলা গানের জগতেও তিনি রয়েছেন অনন্য উচ্চতায়। চিত্রশিল্পী হিসেবেও তাঁর অঙ্কনগুলো নিয়ে আজও আলোচনা-সমালোচনায় মুখর শিল্প সমালোচকরা। তিনি নিজে একজন উচ্চমানের শিল্প সমালোচক তো বটেই। এছাড়াও দার্শনিক, সমাজ সংস্কারক, শিক্ষাবিদ হিসেবেও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ব্যাপৃত বাঙালির জীবন-মনন-মানসে।

সিলেট প্রতিদিন/এমএ