ইতালিতে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে করোনার ভ্যাকসিন নিলেন স্বর্ণা

ইতালিতে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে করোনার ভ্যাকসিন নিলেন স্বর্ণা

প্রতিদিন ডেস্ক :: ইতালিতে গত পাঁচদিনে ৩২ হাজারের বেশি নাগরিককে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে প্রথম বাংলাদেশি স্বেচ্ছাসেবিকা হিসেবে করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছেন স্বর্ণা রহমান (২৭)। 

চলতি বছরের শেষদিন ৩১ ডিসেম্বর ভেনিসের মনফালকোনের একটি হাসপাতালে ভ্যাকসিন নেন তিনি।

এ বিষয়ে স্বর্ণা বলেন, প্রথম কোনো বাংলাদেশি হিসেবে করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণ করাটা সত্যিই আমার জন্য খুব গর্বের বিষয়। আমি সবার দোয়া কামনা করছি।

স্বর্ণার বাবা আজিজুর রহমান বলেন, আমার মেয়ে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছে। সবাই আমার মেয়ের জন্য দোয়া করবেন।   

ইতালির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর মনফালকোনেতে তার পরিবারের সঙ্গে বসবাস করেন স্বর্ণা। তিনি ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়া শেষ করে ২০০৪ সালে পরিবারের সঙ্গে ইতালিতে পাড়ি জমান। পরে দেশটির একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা শেষ করে বর্তমানে দেশটির সান পাওলোর মনফালকোনে হাসপাতালে একজন সেবিকা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তার দেশের বাড়ি ঢাকার কেরানীগঞ্জের দোহারে।

জানা গেছে, চলতি মাসের ২৭ তারিখ থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মেডিসিন বিভাগের অনুমতি নিয়ে ফাইজার ও বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু করে ইতালি। প্রথমাবস্থায় দেশটির মোট ৯ হাজার ৭৫০ জন স্বাস্থ্যকর্মী ও  বয়স্ক মানুষের শরীরে এ ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়। এ পর্যন্ত পাঁচদিনে ৩২ হাজার ১৪৩ জনের দেহে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যা নারী সেবাকর্মী ১৮ হাজার ৪৯৪ জন এবং পুরুষ ১৩ হাজার ৬৪৯ জন। আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে প্রায় ১ দশমিক ৯ মিলিয়ন ভ্যাকসিন ইতালিতে পৌঁছাবে।

এদিকে, দেশটিতে নজিরবিহীন কড়াকড়ির মধ্যে ইংরেজি নববর্ষ উদযাপন করতে বাধ্য হয়েছে নাগরিকরা। সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করায় সারাদেশে এক হাজার ৩৪৭ জনকে আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে। একই কারণে ২১টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানও বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির বিভিন্ন শহরের স্থানীয় প্রশাসন।

সিলেট প্রতিদিন/এমএ