ছাত্রদল নেতা মাহির সাথে ফেসবুকে পরিচয় হয় শিপার

ছাত্রদল নেতা মাহির সাথে ফেসবুকে পরিচয় হয় শিপার

সিলেট প্রতিদিন : সিলেটে আইনজীবী আনোয়ার হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামি জেলা ছাত্রদলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান চৌধুরী মাহির সঙ্গে তিন মাসের পরিচয় ও বিশেষ সম্পর্কের তথ্য দিয়েছেন নিহতের স্ত্রী শিপা বেগম।

পাঁচ দিনের রিমান্ডে থাকা শিপা জানান, ছাত্রদল নেতা শাহজাহান চৌধুরী মাহির সঙ্গে তিন মাসের পরিচয় ও বিশেষ সম্পর্ক আছে। মাহি তার কোনো আত্মীয় নয় বলে জানান তিনি।

তদন্ত কর্মকর্তাদের তিনি জানান, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তাদের দু'জনের পরিচয় হয়। কয়েক দিন মোবাইল ফোনে কথা বলার পর দেখা-সাক্ষাৎ হয়।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রিমান্ডের তৃতীয় দিন শেষে এসব তথ্য জানিয়েছে পুলিশ। তবে এখনও আনোয়ার হত্যার বিষয়ে তিনি মুখ খোলেননি বলে জানা গেছে।

তদন্ত কর্মকর্তা ইয়াছিন আলী জানিয়েছেন, শিপা নানা তথ্য দিচ্ছেন। তদন্তের স্বার্থে এখন তা বলা যাচ্ছে না। রিমান্ড শেষে তার তথ্য যাচাই করা হবে।
সূত্র জানায়, রিমান্ডে থাকা শিপা বেগম তার প্রেমিক শাহাজাহান চৌধুরী মাহি সম্পর্কে অনেক তথ্য দিয়েছেন। আনোয়ারের অবর্তমানে তার বাসায় যাতায়াত, মোটরসাইকেলে ঘুরে বেড়ানোসহ বিভিন্ন বিষয় জানিয়েছেন শিপা। 

কিন্তু আনোয়ারের মৃত্যুর পেছনে মাহি ও তার কী ভূমিকা ছিল সে বিষয়ে এখনও কোনো তথ্য দেননি শিপা। এদিকে আনোয়ার হোসেনের ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে লাশ তোলার জন্য আবেদন করলেও বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কোনো আদেশ হয়নি। এ ছাড়া শিপা ও মাহির কললিস্ট এখনও পুলিশের হাতে পৌঁছেনি।

গত ৩০ এপ্রিল মারা যান অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন। ওই দিন ফজরের নামাজের পর তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। বিকেল ৩টায় স্ত্রী শিপা বেগম স্বজনদের ফোন করে আনোয়ারের মৃত্যুর খবর দেন। পরবর্তীতে তার মৃত্যু নিয়ে রহস্য দেখা দিলে ভাই মনোয়ার বাদী হয়ে এক মাস পর আদালতে এজাহার দাখিল করেন। মামলার পর কোতোয়ালি থানা পুলিশ স্ত্রী শিপাকে গ্রেপ্তার করে।