পৌরবাসীকে নতুন কিছু উপহার দিতে চাই - পাপলু

পৌরবাসীকে নতুন কিছু উপহার দিতে চাই - পাপলু

সাকিব আল মামুন::

“আগামী ৩০জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন। নির্বাচনে মেয়র পদে ৪জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তাদের নির্বাচনী ভাবনা পাঠকের কাছে তুলে ধরতে ৪প্রার্থীর মুখোমুখি হয় “সিলেট প্রতিদিন”। আলাপচারিতায় প্রতিবেদকের কাছে মেয়র প্রার্থীরা তুলে ধরেন নির্বাচনী চিন্তা-চেতনা। ২য় পর্বে থাকছে সাবেক মেয়র ও গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া আহমদ পাপলুর নির্বাচনী ভাবনা। নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন তিনি।

(২)

গোলাপগঞ্জ পৌরসভার প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজের মাধ্যমে গোলাপগঞ্জ পৌরসভাকে মডেল পৌরসভায় রূপান্তরিত করেছিলাম। কিছু অসামপ্ত কাজ রয়ে গিয়েছিল, সেগুলো সম্পন্ন করতে এবং পৌরসভাবাসীকে নতুন কিছু উপহার দিতে আবারো জনগণ মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করবে বলে জানিয়েছেন গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র, স্বতন্ত্র প্রার্থী জাকারিয়া আহমদ পাপলু।

গেলো দুইবার নৌকার মনোনয়ন নিয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর নিকট পরাজিত হলেও এবার জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বলে আলাপচারিতায় জানান সাবেক দুইবারের এ পৌর মেয়র।

তিনি বলেন, পৌরসভার প্রতিষ্ঠাকালীন মেয়র হিসেবে আমার হাত ধরেই পৌরসভার ড্রেন, লাইটিং, মসজিদ, মন্দিরসহ যাবতীয় কাজ সম্পাদিত হয়েছিল। আরো কিছু কাজ হাতে নিয়েছিলাম সেগুলো অসামপ্ত রয়ে গেছে সেগুলো সমাপ্ত করতে চাই। পাশাপাশি পৌরসভার বেকারত্ব দূরীকরণ, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে নতুন হাসপাতাল স্থাপন, নতুন প্রজন্মকে  আরো বেশি উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে আধুনিক মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলবো। পানি সমস্যা নিরসনে ওয়াটার সাপ্লাই ম্যানেজমেন্ট আরো মানসম্মত করে গড়ে তুলবো।

দলীয় মনোনয়নের বাইরে গিয়ে নির্বাচন নিয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি এর আগেও স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করে একাধিবার নির্বাচিত হয়েছি। পরবর্তীতে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করি, তখন দলের ভিতরই কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের নগ্ন হস্তক্ষেপে এবং কিছু কর্মকর্তা মিলে আমার পরাজয়ে ভূমিকা রেখেছিল। এবারও দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলাম, কিন্তু আবারও আমাকে নিয়ে দল এবং নেত্রীর কাছে ভুল বার্তা দিয়ে মনোনয়ন বঞ্চিত করা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত জনগণের চাপে নির্বাচন করতে বাধ্য হই। যে পরিমাণ জনগণের সাড়া পাচ্ছি, এবার বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, জাকারিয়া আহমদ পাপলু গোলাপগঞ্জের রনকেলী নওয়াগ্রামের বাসিন্দা। গোলাপগঞ্জ পৌরসভার প্রতিষ্ঠাকালীন মেয়রসহ একাধিকবার মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন। ছিলেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সর্বশেষ পূর্ণাঙ্গ কমিটির প্রচার সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

এসএএম