'মানিকে - মানিক' চিনে !

'মানিকে - মানিক' চিনে !

সাজলু লস্কর :: 

কথায় আছে, 'মানিকে' -মানিক চেনে। সত্যিই তাই। সুনামগঞ্জের এক মানিক আরেক মানিককে ঠিকই চিনে নিয়েছেন। আর তাই তার মূল্যায়ন করলেন তিনি। ছাতক-দোয়ারাবাজারের সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিক আগামীর ‘মানিক’কে ঠিকই চিনতে পেরেছেন। তিনি হলেন,  ছাতকের মেধাবী সন্তান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন রহমান। 

সম্প্রতি  তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। আর তাই ছাতক দোয়ারার লক্ষাধিক মানুষ তাকে সংবর্ধনা জানালেন।আয়োজক  ছিলেন ঐ এলাকার সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিক।

মানিকের ডাকে সাড়া দিয়ে লাখো মানুষ হাজির হলেন তাদের সন্তানক আল-আমিনকে দেখতে  যত দুর চোখ যায় শুধু মানুষ আর আর মানুষ,মঞ্চ ছাড়িয়ে মানুষের স্রোত গিয়ে টেকেছে বাসা,বাড়ির ছাদে।একজনরে নিজের সন্তানকে দেখতে রাস্তার দুপাশেও হাজার হাজার মানুষ।মানুষের স্রোতে জনসভা হয়ে যায় জনসমুদ্র। নিজ এলাকার মানুষের ভালো বাসায় আবেগ আপ্লুত আল আমিন।

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ, জেলার সকল সংসদ সদস্য, জনপ্রতিনিধি এবং লাখো মানুষের উপস্থিতিতে সংবর্ধিত হলেন বৃহত্তর সিলেটের সন্তান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন রহমান। 

তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় ৬ মার্চ শনিবার তাকে সংবর্ধনা প্রদান উপলক্ষে এই ছাত্র গণজমায়েত অনুষ্ঠিত হয়।

গণজমায়েতে বক্তারা বলেন, মেধাবী দেশপ্রেমিক নতুন প্রজন্মকে রাজনীতিতে উৎসাহিত করতে হবে। মেধাবীরা রাজনীতিতে আসলে তাদের মেধা এবং শ্রমে আগামীর সোনার বাংলা বিনির্মাণ হবে।

বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন মেধাবী, পরিশ্রমী ও সৎ রাজনীতির পথিকৃৎ। নিজের মেধা ও যোগ্যতা দিয়ে তিনি তিলে তিলে নিজেকে গড়ে তুলেছিলেন। বাঙালির অবিসংবাদিত নেতায় পরিণত হয়েছিলেন।

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ তকিরাই পুটিয়ার মাঠে অনুষ্ঠিত গণজমায়েতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন ছাতক-দোয়ারা আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক। প্রধান বক্তা ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মতিউর রহমান, বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সিলেট-সুনামগঞ্জ সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য শামীমা শাহরিয়ার, ছাতক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান, শাল্লা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ চৌধুরী আল আমিন, বিশ্বম্বরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সফর উদ্দিন, দিরাই পৌরসভার মেয়র বিশ্বজিত রায় প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাতক-দোয়ারার সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, সুনামগঞ্জের উন্নয়নে আওয়ামী লীগ এবং সংগঠনের সকল জনপ্রতিনিধি ঐক্যবদ্ধ। সকল দুর্যোগ দুর্দিনে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং সহযোগিতায় আমরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছি। তিনি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সাথে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক ৬ লেন করার দাবি জানান।

গোবিন্দগঞ্জ সৈয়দের গাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মখলিছুর রহমানের সভাপতিত্বে, ছাতক উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক সৈয়দ আহমদ, আফজাল হোসেন ও সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসবক লীগের সহ-সভাপতি এম রশিদ আহমদের যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট রাজ উদ্দিন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রেজাউল করিম শামীম ও অ্যাডভোকেট নান্টু রায়, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুর রহমান সিরাজ, সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আক্তারুজ্জামান সেলিম, ছাতক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত লাহিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম, দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সালেহা বেগম, দিরাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট রিপা সিনহা, ছাতক উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ইউপি চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ, ছাতক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আনোয়ার রহমান তোতা মিয়া, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম কিরণ, ছাতক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদ, সুনামগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি বাবুল রায়, ছাতক উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক তাজামুল হক রিপন

সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য দেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক সম্পাদক আল আমিন রহমান।

গণজমায়েত শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন ডা. জহির অচিনপুরি, ঢাকার সংগীতশিল্পী পঙ্কজ দেব ও সুলতানা ইয়াসমিন লায়লা।

সিলেট প্রতিদিন /এসএল