রমজানের আগেই আনাস মাদানীর নেতৃত্বে নতুন হেফাজত

রমজানের আগেই আনাস মাদানীর নেতৃত্বে নতুন হেফাজত

প্রতিদিন ডেস্ক :: ফাজতের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত আল্লামা শফীর পুত্রের নেতৃত্বে নতুন হেফাজত আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে। নতুন হেফাজতের উদ্যোক্তাদের সূত্রে জানা গেছে, রমজানের আগেই নতুন হেফাজত আত্মপ্রকাশ করতে পারে। ইতিমধ্যে আল্লামা শফীর পুত্র আনাস মাদানীর সঙ্গে জুনায়েদ বাবুনগরীপন্থী হেফাজতের বেশ কয়েকজন নেতা কথা বলেছেন। তারা সাম্প্রতিক সময়ে হেফাজতের কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ। হেফাজতের একটি বড় অংশ মনে করছে বাবুনগরীর নেতৃত্বে হেফাজতে ইসলাম তার অরাজনৈতিক চরিত্র হারিয়ে ফেলেছে। তারা মনে করছে, হেফাজতকে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে। বর্তমানে আনাস মাদানী চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার সফরভাটা মেহেরিয়া মাদ্রাসায় দায়িত্ব পালন করছেন।

২০১০ সালে কওমী মাদ্রাসার সমস্যা ও সংকট নিরসনে হাটহাজারী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আল্লামা শফীর নেতৃত্বে হেফাজতে ইসলাম গঠিত হয়। মূলত সরকারের নারী নীতি বিরোধিতার প্রেক্ষাপটেই জন্ম হয় হেফাজত। ২০১৩ সালে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবীতে গঠিত গণজাগরণ মঞ্চের বিরোধিতার প্রেক্ষাপটে আলোচনায় আসে হেফাজত।

২০১৩ সালের ৫ মে হেফাজত ঢাকা অবরোধ কর্মসূচী ঘোষণা করে। ঐ কর্মসূচীতে পল্টন, বায়তুল মোকাররম এবং মতিঝিল এলাকায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায় হেফাজত। শাপলা চত্বরে হেফাজত অবস্থান গ্রহণ করে। ৫ মে হেফাজতের তাণ্ডব সরকার দক্ষতা ও সাহসের সঙ্গে মোকাবেলা করে। ঐ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জুনায়েদ বাবুনগরী সহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু এর পরপরই হেফাজতের সাথে সমঝোতা করে সরকার। এই সখ্যতা এবং সমঝোতা চলে আল্লামা শফী বেঁচে থাকা পর্যন্ত। আল্লামা শফীর মৃত্যুর পর হেফাজতে রীতিমতো ‘ক্যু’ করেন জুনায়েদ বাবুনগরী। আল্লামা শফীর মৃত্যুর পর বাবুনগরী হেফাজতের আমীর হয়েই আল্লামা শফী পন্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ শুরু করেন। এমনকি আল্লামা শফী পুত্র আনাস মাদানীকে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে বহিষ্কার করেন।

এসময় বাবুনগরীর বিপুল প্রভাব থাকায় আল্লামা শফী পন্থীরা বাবুনগরীর বিরুদ্ধে পৃথক অবস্থান নিতে পারেনি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বাবুনগরী এবং মামুনুলদের তৎপরতায় হেফাজতের শীর্ষ নেতারাই ক্ষুব্ধ। তারা এখন হেফাজতকে রাজনীতির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহারের বিরুদ্ধে সোচ্চার। এ নিয়ে হেফাজতের মেরুকরণ শুরু হয়েছে। গতকাল হেফাজতের বিক্ষোভ কর্মসূচীতে অনেক নেতাই ছিলেন না। এখন হেফাজতের ভাঙ্গন প্রক্রিয়ায় কোন হেফাজত আসল হেফাজত হবে সেটাই দেখার বিষয়।

সূত্র : বাংলা ইনসাইডার