সিলেটে ঈদের জামাতে মসজিদে মসজিদে করোনা থেকে মুক্তির আকুতি

সিলেটে ঈদের জামাতে মসজিদে মসজিদে করোনা থেকে মুক্তির আকুতি
হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার থেকে ছবিটি তুলেছেন আমাদের আলোকচিত্রী মো.আজমল আলী

প্রতিদিন প্রতিবেদক :: সিলেটের হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মসজিদে বৃষ্টি উপেক্ষা করে পবিত্র ঈদুল আজহার প্রধান জামাত বুধবার (২১ জুলাই) সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়। এই ঈদ জামাতে ইমামতি করেন মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা আসজাদ আহমদ।

এখানে বিভিন্ন সরকারি দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক নেতাসহ সাধারণ মুসল্লিরা ঈদের নামাজ আদায় করেন।  

ঈদের প্রধান জামাতে দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ শেষে দেশ ও জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ-শান্তি, অগ্রগতি ও কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এ সময় দেশ ও জাতির স্বার্থে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য রক্ষার ডাক দেওয়া হয়। এছাড়া ঈদুল আজহার প্রধান জামাতে বাংলাদেশসহ গোটা বিশ্বে চলমান করোনা মহামারি থেকে সবাইকে পরিত্রাণের জন্য মহান আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ জানানো হয়।

ঈদের নামাজ শেষে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মহান আল্লাহর দরবারে প্রয়াত পিতা-মাতা ও স্বজনদের রুহের মাগফেরাত কামনার জন্য বিভিন্ন গোরস্থানে যান এবং কবর জিয়ারত করেন। 

ঈদের নামাজ আদায়ের সময়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মেনে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে কাতারে দাঁড়ান মুসল্লিরা। 

সেই সঙ্গে সিটি করপোরেশন এলাকা ও ইউনিয়ন সমূহ মিলিয়ে মেট্টোপলিটন এলাকার সাড়ে ১১০০ মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। পাশাপাশি জেলার ১৩ উপজেলায় দুই হাজার ৬৭৩টি মসজিদ ও ঈদগাহে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

সব মিলিয়ে মহানগর ও জেলায় তিন হাজার ৮২৩ মসজিদ ও ঈদগাহে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সিলেট মহানগর ও জেলা পুলিশের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (২০ জুলাই) সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) বি এম আশরাফ উল্ল্যাহ তাহের জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে মহানগর এলাকায় ঈদগাহে ঈদ জামাত হচ্ছে না। তবে সাড়ে ১১০০ মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে মসজিদগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। আর প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে হযরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহ মসজিদে।

সিলেট জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. লুৎফর রহমান জানান, সিলেট জেলার ১৩টি উপজেলায় ২৭১টি ঈদগাহ ও দুই হাজার ৮৬১টি মসজিদ রয়েছে। এরমধ্যে ২১২টিতে ঈদগাহে ও দুই হাজার ৪৬১টি মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে করোনা থেকে সুরক্ষায় মুসল্লিদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাতে উপস্থিত হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আগামী বুধবার (২১ জুলাই) নগরের মসজিদগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ পড়বেন মুসল্লিরা। তবে লোকসমাগম বেশি হলে মসজিদে একাধিক জামাতেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  

হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মসজিদে সকাল ৮টায় একটিই জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা আসজাদ আহমদ। 

নগরের কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৭টায়, ৮টায় ও ৯টায়। প্রথম জামাতে ইমামতি করবেন মসজিদের ইমাম ও খতিব শায়খ সাঈদ নুরুজ্জামান আল মাদানী, দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করবেন মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফিজ মাওলানা মিফতাহ উদ্দিন এবং তৃতীয় জামাতে হাফিজ আব্দুল হাকিম।

কালেক্টরেট জামে মসজিদে তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৮টায়, ৯টায় ও ১০টায়। নগরের বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সংশ্লিষ্টরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


সিলেট প্রতিদিন/এমএ