সিলেট বিভাগে যুবলীগের সাংগঠনিক দায়িত্ব পেলেন রফিকুল ও ড. রেজাউল 

সিলেট বিভাগে যুবলীগের সাংগঠনিক দায়িত্ব পেলেন রফিকুল ও ড. রেজাউল 

প্রতিদিন প্রতিবেদক  :: বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রমকে আরো গতিশীল ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে যুবলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল আলম সৈকত জোয়ার্দ্দার ও সাংগঠনিক সম্পাদক প্রফেসর ড. মো. রেজাউল কবির কে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় প্রেসিডিয়াম সদস্যদের ভার্চুয়ালি সভায় এই দায়িত্ব বণ্টন করা হয়।

গ্রহনযোগ্য কমিটি গঠন, তৃণমূল পর্যায়ে সাংগঠনিক ভাবে যুবলীগকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং যুবলীগকে ঐক্যবদ্ধ করে গড়ো তুলা ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে যুবলীগকে প্রস্তুতিকরণে কাজ করবেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। 

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) সিলেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক নেতা যুবলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো.রফিকুল আলম সৈকত জোয়ার্দ্দার সিলেট প্রতিদিনকে বলেন, গতকাল বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়ামের বৈঠকে সারাদেশের সাংগঠনিক টিমের দায়িত্ব দেয়া হয়।পবিত্র নগরী সিলেটের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আমি ও সাংগঠনিক সম্পাদক প্রফেসর ড. রেজাউল কবিরকে । আমরা যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের পরামর্শ অনুযায়ী  পরবর্তী করনীয় ঠিক করবো।

সিলেট বিভাগের  দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক নেতা ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রফেসর ড. মো. রেজাউল কবির সিলেট প্রতিদিনকে বলেন, সিলেটে যুবলীগকে আরো এগিয়ে নিতে আমরা কাজ করে যাবো।যুবলীগের চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশ ক্রমে পরবর্তী কর্ম পরিকল্পনা ঠিক করবো । এব প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সকল সাংগঠনিক রিপোর্ট নেব তার পর কমিটিসহ বাকি কাজগুলো হাত দেব।

যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অংশ নেন সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল সভায় অংশ নেন।

ভার্চুয়াল সভায় সাংগঠনিক বিভাগের দায়িত্ব বন্টণসহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন সংক্রান্ত কর্মসূচি প্রণয়ন কমিটি, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রকাশনা-পুস্তিকা-বুকলেট প্রকাশ সংক্রান্ত কমিটি, বাজেট প্রণয়ন কমিটি গঠনসহ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ, মঞ্জুর আলম শাহীন, আবু আহমেদ নাসিম পাভেল, খালেদ শওকত আলী, এফবিসিসিআই এর সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি, রফিকুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান পবন, নবী নেওয়াজ, আবুল কালাম আহসানুল হক চৌধুরী এমপি, এনামুল হক খান, সাজ্জাদ হায়দার লিটন, মোয়াজ্জেম হোসেন, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, সেলিম আলতাফ জর্জ এমপি, মৃণাল কান্তি জোয়ার্দ্দার, তাজউদ্দিন আহমেদ, জুয়েল আরেং এমপি, জসিম মাতুব্বর, আনোয়ার হোসেন ও এম শাহাদাত হোসেন তসলিম।

উল্লেখ্য: গত ২০১৯ সালের ২৭ ও ২৯ জুলাই সম্মেলনের মাধ্যমে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়। দীর্ঘ ১৬ বছর পর অনুষ্ঠিত জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতির দায়িত্ব পান শামীম আহমদ ভিপি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মো. শামীম আহমদ। কাউন্সিলরদের গোপন ভোটে তারা নির্বাচিত হন। 

২৭ জুলাই মহানগর যুবলীগের সম্মেলনে সভাপতি নির্বাচিত হন আলম খান মুক্তি ও সাধারণ সম্পাদক হন মুশফিক জায়গীরদার।

সিলেট প্রতিদিন /এসএল