৪২ লাখ টাকা নিয়ে পিয়ন উধাও! 

৪২ লাখ টাকা নিয়ে পিয়ন উধাও! 

প্রতিদিন ডেস্ক :: জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করে ব্যাংক থেকে প্রায় ৪২ লাখ টাকা উত্তোলনের অভিযোগ উঠেছে অফিস সহকারী (পিয়ন) সাকিবুল হাসানের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর থেকেই লাপাত্তা সাকিবুল।

এ ঘটনায় থানায় পৃথক দু’টি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। উপজেলা হিসাবরক্ষণ কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত তিন বছর আগে পিয়ন জয়নাল আবেদীন অসুস্থ হয়ে পড়েন। জয়নালের পরিবর্তে তার ছেলে সাকিবুল হাসানকে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়। কাজ করার সুবাদে কার্যালয়ের সব গোপনীয় কাগজপত্রসহ অফিসিয়াল টাকা লেনদেনের পিন কোড জেনে ফেলেন সাকিবুল। 

একইসঙ্গে কার্যালয়ের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিশ্বস্ত হয়ে উঠেন তিনি। এরই সুযোগ নিয়ে চার দফায় গত তিন বছরে কার্যালয়ের অডিটর কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, এস এ এস সুপারিনটেনডেন্ট ও হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তান স্নিগ্ধ রায়হানের স্বাক্ষর জাল করে উপজেলা কমপ্লেক্স সোনালী ব্যাংক থেকে জামানত ফান্ডের ৪১ লাখ ৯৪ হাজার ৫১২ টাকা উত্তোলন করে পিয়ন সাকিবুল।

গত ১৬ ফেব্রুয়ারি টাকা উত্তোলনের ভাউচার তলব করে হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা স্নিগ্ধ রায়হান। এ সময় দেখতে পান টাকা উত্তোলিত ভাউচারে স্বাক্ষরগুলো তার নয়। এরপর খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, কর্মকর্তাদের স্বাক্ষর জাল করে ব্যাংক থেকে পর্যায়ক্রমে ৪১ লাখ ৯৪ হাজার ৫১২ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। সে সময় পিয়ন সাকিবুল কৌশলে পালিয়ে যান।

উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা স্নিগ্ধ রায়হান জানান, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি কাগজপত্র খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, চার দফায় কর্মকর্তাদের স্বাক্ষর জাল করে ৪১ লাখ ৯৪ হাজার ৫১২ টাকা উত্তোলন করে নিয়েছে পিয়ন সাকিবুল। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। তাদের নিদের্শ অনুযায়ী থানায় দু’টি জিডিসহ বিষয়টি দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) জানানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন পিয়ন সাকিবুল।

সিলেট প্রতিদিন/এমএ