৫০ বছরের পুরোনো আলুর হিমাগার মুহূর্তেই ধসে পড়লো

৫০ বছরের পুরোনো আলুর হিমাগার মুহূর্তেই ধসে পড়লো

প্রতিদিন ডেস্ক :: কুমিল্লার বুড়িচংয়ে ৫০ বছরের পুরোনো চারতলা সমান উঁচু একটি আলুর কোল্ড স্টোরেজ (হিমাগার) ধসে পড়েছে। এতে মানুষ হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটেলেও হিমাগারের গ্যাসে আটটি গরু মারা গেছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

মঙ্গলবার (৮ জুন) ভোর ৬টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সংলগ্ন এলাকায় উপজেলার কাবিলা বাজারে মোকাম কোল্ড স্টোরেজ লিমিটেড নামের হিমাগারটি ধসের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে কুমিল্লা ও চান্দিনা ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজে অংশ নেয়।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ইনর্চাজ আলী আজম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘সকাল ৭টার দিকে আমরা খবর পাই হিমাগারটি ধসে পড়েছে। পরে কুমিল্লা ও চান্দিনা ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ ঘটনায় কোনো মানুষ হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে পাশে সিয়াম ডেইরি নামে একটি গরুর ফার্মে হিমাগারের গ্যাসের কারণে আটটি গরু মারা যায়। ফার্মে থাকা বাকি গরুগুলো নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।’

ধসে পড়া হিমাগারটিতে ২৮ হাজার ২৭৪ বস্তা (একেকটির ওজন ৬৫ কেজি) আলু সংরক্ষিত ছিল। এ ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো নির্ণয় করা যায়নি। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা।

মোকাম ইউনিয়ন পরিষেদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক মুন্সী জাগো নিউজকে জানান, ভবনটি অন্তত ৫০ বছর আগের। সকালে বিকট শব্দে ভবনটি ভেঙে পড়ে।

হিমাগার ভবনটির মালিক গোলাম সারোয়ার বলেন, ‘ভবনটির বয়স ৮ বছর। কেন ধসে পড়ল তা বলতে পারছি না।’ তবে ভবনটির বয়স আট বছর বলে দাবি করেন তিনি।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক শারফুল হাসান ভূঁইয়া বলেন, ফার্মটিতে ৭২টি গরু ছিল। ৬৪টি গরুকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি। বাকি আটটি গরু মারা গেছে।

তিনি জানান, বৃষ্টি ও দেরিতে সংবাদটি শোনার কারণে ধসে পড়া ভবনটি সরানোর কাজে বিলম্ব হচ্ছে।

সিলেট প্রতিদিন/এমএ