মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন


তোফায়েল আহমেদের ৭৭তম জন্মদিন আজ

তোফায়েল আহমেদের ৭৭তম জন্মদিন আজ


প্রতিদনি ডেস্ক : মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের নায়ক তোফায়েল আহমেদের ৭৭তম জন্মদিন আজ। ১৯৪৩ সালের ২২ অক্টোবর ভোলার কোড়ালিয়া গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের এই সদস্য বর্তমানে জাতীয় সংসদের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

তোফায়েল আহমেদের রাজনীতিতে পথচলার শুরু কলেজজীবন থেকেই। ১৯৬৭ থেকে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত ডাকসুর ভিপি ছিলেন তিনি। এ সময়ে চারটি ছাত্র সংগঠনের সমন্বয়ে সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠন করে বঙ্গবন্ধু ঘোষিত ছয় দফাকে ১১ দফায় অন্তর্ভুক্ত করে ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানে নেতৃত্ব দেন তিনি।

এর আগে দীর্ঘ ৩৩ মাস কারাগারে আটক বঙ্গবন্ধুসহ আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার সব রাজবন্দির নিঃশর্ত মুক্তি দাবিতে তোফায়েল আহমেদের নেতৃত্বে সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ তুমুল গণআন্দোলন গড়ে তোলে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৯৬৯ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধুসহ সব রাজবন্দিকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় তৎকালীন শাসকগোষ্ঠী। পর দিন ২৩ ফেব্রুয়ারি রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) লাখ লাখ মানুষের উপস্থিতিতে জাতির পিতাকে ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধিতে ভূষিত করেন তোফায়েল আহমেদ। ১৯৬৯ সালে তিনি ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালের ৭ জুন বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।

১৯৭০ সালের নির্বাচনে ভোলার দৌলতখান-তজুমদ্দিন-মনপুরা আসন থেকে মাত্র ২৭ বছর বয়সে পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন তোফায়েল আহমেদ। তিনি ছিলেন ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং ‘মুজিব বাহিনী’র অঞ্চলভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত চার প্রধানের একজন। ১৯৭২ সালের ১৪ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদায় তাকে রাজনৈতিক সচিব নিয়োগ করেন। ১৯৭৫ সালের ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত তিনি এ পদে বহাল ছিলেন। ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে নিজ জেলা ভোলা থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৫ সালে দেশে রাষ্ট্রপতিশাসিত সরকার প্রতিষ্ঠার পর প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদায় রাষ্ট্রপতির বিশেষ সহকারী নিযুক্ত হন।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর প্রথমে গৃহবন্দি ও পরে ওই বছরের ৬ সেপ্টেম্বর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। দীর্ঘ ৩৩ মাস তিনি কারান্তরালে ছিলেন। এমনকি এক-এগারোর পর সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলেও স্ত্রী-মেয়েসহ মিথ্যা মামলার আসামি হয়েছেন। ১৯৮৬, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের নির্বাচনে তিনি এমপি নির্বাচিত হন।

সিলেট প্রতিদিন/ এস/আর





পুরানো সংবাদ

Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  


© All rights reserved © 2017 sylhetprotidin.com