মাধবপুর প্রতিনিধি : হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের প্রায় ২০ টি পরিবারের যোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যম হচেছ বাঁশের তৈরী বিজ্র। পাড়ার লোকজন নিজেরা টাকা দিয়ে বাঁশ কিনে সাকু নির্মাণ করেন। জনপ্রতিনিধিরা বিভিন্ন সময় রাস্তা করার কথা দিলেও কথা রাখেননি।
১৯৯৭ সালে মাধবপুর পৌরসভা প্রতিষ্টিত হয়। ২০১২ সালে পৌরসভাটি দ্বিতীয় শ্রেণী থেকে প্রথম শ্রেণীতে উন্নিত হয়। প্রথম শ্রেণী পৌরসভা হওয়ার পর ও পৌরসভার অন্যতম জনবহুল ওয়ার্ড ৩ নং ওয়ার্ডের ২০ টি পরিবারের এখনো যোগাযোগ ব্যবস্থা হয়নি।
ওই ওয়ার্ডের দানু মিয়া শিকদারের স্ত্রী মাহমুদা শিকদার জানান, রাস্তাটি নির্মাণ না হওয়ায় অনেক কষ্টে চলাচল করতে হয়। ছেলে মেয়ে গুলো স্কুলে যেতে পারে না।কোন মানুষ অসুস্থ হলে দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাবার ব্যবস্থা নেই। সব জায়গায় রাস্তা হচেছ কিন্তু আমাদের রাস্তা কেন হচেছ না বুঝি না। রশিদ মিয়া জানান, আমরা গরীব মানুষ । সবাই মিলে টাকা দিয়ে বাঁশের সাকু বানাই। কয়দিন পর পর বাঁশের সাকু নষ্ট হয়ে যায়। মেম্বার ( কাউন্সিলর) বলে রাস্তা করে দিবে । কিন্তু হচেছ না।
স্থানীয় কাউন্সিলর বাবুল হোসেন জানান, রাস্তাটি নির্মাণ করার জন্য জলবায়ু প্রজেক্টে অন্তভুক্ত করা হয়েছে। আশা করি শিঘ্রই হয়ে যাবে।
মাধবপুর পৌর মেয়র হিরেন্দ্র লাল সাহা জানান, রাস্তাটি করার জন্য প্রকল্পে অন্তভুক্ত করা হয়েছে। তবে রাস্তার প্রবেশ মুখে ভবন নির্মান করা আছে। সে গুলো অপসারন করতে হবে। এই জন্য স্থানীয়দের সহযোগীতার প্রয়োজন ।