মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১২:১০ অপরাহ্ন


কুলাউড়ার ঝিমাই চা বাগানে শ্রমিক-খাসিয়া সংঘর্ষ, আহত ৭

কুলাউড়ার ঝিমাই চা বাগানে শ্রমিক-খাসিয়া সংঘর্ষ, আহত ৭


মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় খাসিয়া বনাম বাগান চা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় উভয়পক্ষে ৭ ব্যক্তি আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। কুলাউড়ার ঝিমাই চা বাগানের গেইটে কর্তব্যরত চৌকিদারকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার ঘটনায় চা শ্রমিক বনাম খাসিয়াদের মধ্যে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে এখন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে এ নিয়ে চরম উত্তেজনা শুরু হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা যায়, ঝিমাই চা বাগানের অভ্যন্তর দিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যার কিছু পূর্বে কতিপয় খাসিয়া ট্রাকযোগে পাকাঘরের মালামাল নিয়ে যাওয়ার জন্য ঝিমাই চা বাগানের গেইটের সম্মুখে যায়। এসময় গেইটম্যান জামাল মিয়া ম্যানেজারের অনুমতি নিয়ে আসার জন্য খাসিয়াদের বলেন। কিন্তু এতে খাসিয়ারা ক্ষিপ্ত হয়ে গেইটম্যান জামালকে লাথি, কিল ঘুষি মেরে মুমুর্ষ অবস্থায় বাগানের নীচে নালায় (চড়া) ফেলে দেয়। এ খবর বাগানের অন্যান্য শ্রমিকরা খবর পেয়ে পাগলা ঘণ্টি (জরুরী প্রয়োজনে বাজানো হয়) বাজায়। আর এতে বাগানের সকল শ্রমিক এসে খাসিয়াদের উপর চড়াও হয়। এবং উভয় পক্ষে সংঘর্ষ বাধে এতে কমপক্ষে ৪ শ্রমিক ও ৩ খাসিয়া আহত হন বলে জানা যায়। বাগানের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিক কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে বাগানের জায়গায় বসবাসরত ঝিমাই পুঞ্জির খাসিয়া রানা সুরং অভিযোগ করেন, তারা পুঞ্জিতে ঘরের জন্য টাইলস নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু বাগানের চৌকিদার বাধা দিলে সংঘর্ষ বাধে এবং আমার পুঞ্জির ৩ শ্রমিককে শ্রমিকরা ধরে বাগানে নিয়ে যায়। এবং পাগলা ঘণ্টি বাজিয়ে শ্রমিককে জড়ো করে আমাদেরকে ধাওয়া করা হয়। এতে ৩ খাসিয়া আহত হয়েছেন। ঝিমাই চা বাগানের ব্যবস্থাপক মনিরুল ইসলাম জানান, প্রশাসন থেকে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে খাসিয়াদেরকে বাগানের রাস্তা দিয়ে গাড়ী ব্যবহারের ব্যবহারের পূর্বে বাগানের অনুমতি নিতে হবে। কিন্তু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জোরপূর্বক খাসিয়ারা গেইটের চৌকিদারকে মারধর করে ছড়ায় ফেলে দিয়ে জোরপূর্বক
বাগানে প্রবেশের চেষ্টা করলে বাগানের অন্যান্য শ্রমিক ধাওয়া দেয়। এতে বাগানের ৪ জন শ্রমিক আহত হন। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চৌকিদার জামালকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। বাকি ৩ জন স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় থানা পুলিশকে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম দস্তগীর ও কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সিলেট প্রতিদিন/এমজে





পুরানো সংবাদ

Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930  


© All rights reserved © 2017 sylhetprotidin.com